৫ ডিসেম্বর খালেদা জিয়াকে মুক্তি না দিলে শুধু এক দফার আন্দোলন

কালের সংবাদ ডেস্ক: আগামী ৫ ডিসেম্বর বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি না হলে বিএনপি সরকার পতনের এক দফা আন্দোলনে যাবে বলে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন।আজ শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবে ঢাকাস্থ ভোলা মনপুরা চরফ্যাশন জাতীয়তাবাদী ফোরাম আয়োজিত এক প্রতিবাদ সভায় তিনি এ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন।

‘বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার অবিলম্বে মুক্তি এবং ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের অবৈধ সাজা বাতিলের দাবি’ শীর্ষক এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, ‘যদি ৫ ডিসেম্বর বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া মুক্ত না হন তাহলে বুঝতে হবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হস্তক্ষেপ রয়েছে। তার (শেখ হাসিনা) সরাসরি হস্তক্ষেপে বেগম খালেদা জিয়া মুক্ত নাও হতে পারেন। আর সেটা হলে, ৫ ডিসেম্বরের পরে এদেশে শুধু এক দফার আন্দোলন হবে। তা হবে- সরকার পতনের আন্দোলন।

বিএসএমএমইউ’র চিকিৎসকদের উদ্দেশ্য করে বিএনপির এই নেতা বলেন, খালেদা জিয়ার চিকিৎসার জন্য যে বোর্ড তৈরি করা হয়েছে, সেই মেডিকেল বোর্ডের রিপোর্ট চেয়েছেন আদালত। আমরা জানি, বিএসএমএমইউ’র প্রশাসন ও চিকিৎসকরাও স্বাধীন নন। এরপরও মনে করি, যদি আপনাদের এখন পর্যন্ত নীতিবোধ ও পেশাগত সততা থেকে থাকে তাহলে বেগম খালেদা জিয়ার সঠিক রিপোর্ট সুপ্রিম কোর্টে দেবেন। আর সঠিক রিপোর্ট দিলে আমার বিশ্বাস, বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তি না দিয়ে আপিল বিভাগের অন্য কোনো বিকল্প নাই।

খন্দকার মোশাররফ হোসেন আরও বলেন, আমাদের উচ্চ আদালত, আপিল বিভাগ ও বিএসএমএমইউ যদি সুবিচার না পাই, তাহলে এই সরকারের পতন ঘটানো ছাড়া আমাদের কোনো বিকল্প নাই। আর এই পতন ঘটিয়েই আমাদের নেত্রীকে মুক্ত করতে হবে। সেজন্য আজকে আমাদের সকলকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।

আজকে সরকার এদেশের জনগণের স্বার্থে কোন কিছু করছে না বলেও মন্তব্য করেন খন্দকার মোশাররফ।সাবেক ছাত্রনেতা নাজিম উদ্দিন আলমের সভাপতিত্বে সভায় বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমান, যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, প্রশিক্ষণ বিষয়ক সম্পাদক এবিএম মোশাররফ হোসেন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

এস ইসলাম/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category