৩৭০ ধারা বিলুপ্ত হওয়ার পর থেকে সতর্কতা রাজ্য জুড়ে

বিপ্রদ্বীপ দাস, (হুগলি, কলকাতা, ভারত): জম্মু-কাশ্মীরকে বিশেষ মর্যাদা প্রদানকারী ৩৭০ ধারা প্রত্যাহারের পর আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে রাজ্যগুলিকে সতর্ক করল কেন্দ্রীয় সরকার। এর জন্য কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের যুগ্মসচিব এসসিএল দাস সব রাজ্যের মুখ্যসচিব, ডিরেক্টর জেনারেল অব পুলিস, দিল্লির পুলিস কমিশনারকে সতর্ক করে অ্যাডভাইসারি পাঠিয়েছেন। রাজ্যের মুখ্যসচিব মলয় দে এবং রাজ্য পুলিসের ডিজি বীরেন্দ্রকে ওই অ্যাডভাইসারি পাঠিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের যুগ্মসচিব। সেই অ্যাডভাইসারি অনুযায়ী নবান্ন থেকে প্রতিটি জেলাকেই এ ব্যাপারে সতর্ক করা হয়েছে। পুলিসি টহলদারি বাড়ানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। শান্তি বজায় রাখার উপর বিশেষ জোর দিতে বলা হয়েছে। রাজ্যের যেখানে যেখানে কাশ্মীরিরা থাকেন, তাঁদের উপর নজর রাখতে বলা হয়েছে।

কলকাতাতেও সব থানার ওসিকে সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে। রাস্তায় টহলদারিতে থাকতে বলা হয়েছে সব থানার ওসি’কে। এসটিএফ, গোয়েন্দা বিভাগ, সাইবার থানাকে সতর্ক করে বলা হয়েছে, ফেসবুকের মতো সোশ্যাল মিডিয়ায় কেউ যেন কোনও গুজব ছড়াতে না পারে। সোশ্যাল মিডিয়ার উপর নজর রাখতে হবে। বেহালা, ঠাকুরপুকুর, বউবাজার এবং বন্দর এলাকায় মূলত কাশ্মীরি শাল বিক্রেতারা বসবাস করেন। এই সব থানা এলাকায় বাড়তি নজর দিতে বলা হয়েছে। ফলে কলকাতা সহ রাজ্যজুড়ে সতর্কতা জারি হয়েছে।

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের পাঠানো অ্যাডভাইসারিতে বলা হয়েছে, জাতীয় স্বার্থে আজ জম্মু-কাশ্মীর ইস্যুতে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা। এই পরিস্থিতিতে দেশের কোথাও কিছুতেই আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি হতে দেওয়া যাবে না। আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় যেসব নিরাপত্তা বাহিনী বা এজেন্সি কাজ করে, তাদের সর্বদা সতর্ক থাকতে হবে। কোথাও কোনও সমাজবিরোধী কার্যকলাপ বা শান্তিনষ্টকারী কোনও ঘটনা ঘটলে কড়া হাতে তার মোকাবিলা করতে হবে। সব সম্প্রদায়ের মধ্যে শান্তি ও সম্প্রীতি বজায় রাখতে হবে। সংখ্যালঘুপ্রধান এলাকায় বিশেষ নজর দিতে হবে। সেখানে নিরাপত্তা বাহিনীর টহলদারি বাড়াতে হবে। অনেক রকম গুজব ছড়ানো হতে পারে, সেদিকেও কড়া নজর দিতে হবে।

যারা গুজব ছড়িয়ে অশান্তি পাকানোর চেষ্টা করবে, তাদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নিতে হবে। সোশ্যাল মিডিয়ার উপর বিশেষ নজর রাখতে হবে। দেখতে হবে, কোনওভাবেই যেন জনজীবনে কোনও প্রভাব না পড়ে। রাজ্যে বসবাসকারী জম্মু-কাশ্মীরের পড়ুয়াদেরও নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করতে হবে।

এম কে ইসলাম/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category