১৪ ফেব্রুয়ারি

কাব্যগ্রন্থ:- বাঁশিওয়ালা
এ কে সরকার শাওন শাওনাজ, ঢাকা।

 

তিরাশির ১৪ ফেব্রুয়ারি
বুকের মাঝে আগুন
চোখে অশ্রু বারি,
শহীদ জয়নাল-জাফর-আয়ুবের
লাশ মাথায় নিয়ে
আজো শোকের মাতম করি!

 

নারিকেল জিঞ্জিরা থেকে তেতুলিয়া
দিপালী সাহার লাশ খুঁজে মরি!
চারিদিকে আরও কত
স্বজনের আহাজারি;
কি করে ভুলতে পারি!
১৪ ফেব্রুয়ারি!

 

মধ্য ফেব্রুয়ারিতে কাঞ্চনের
রক্তে বঙ্গোপসাগর ডুবে যায়!
আমি শোকে দুঃখে দ্রোহে স্তম্ভিত
কেমন করে জাতি তাঁদের ভুলে যায়!

 

অকুতোভয় কারাবাসি
শিবলি-কাইয়ুম
হাবিবুর রহমান-আব্দুল আলী;
সহস্রাধিক সময়ের শ্রেষ্ঠ
লড়াকু বাংলা মায়ের সন্তান,
জীবনে মরণে কভু যেন
আমরা তাদের না ভুলি?

 

কারা ওরা যারা ইতিহাসকে হারায়?
মুছে দিতে চায় রক্তাক্ত ইতিহাস
অবলীলায় অবহেলায়!
আমাদেরও কি নেই কোন দায়?

 

সেদিন গণতন্ত্র ছিল
বুটের তলায় পিষ্ট!
আজ হাস্যকর একটি শব্দ
গণতন্ত্র নিয়ে রুষ্ট!

 

জাগবে প্রজন্ম
আবার জানবে ফেব্রুয়ারির উত্তাপ!
হঠাৎ গজিয়ে ওঠা
ভালবাসা দিবস ধোয়া তুলে
মুছা যাবে না ১৪ ফেব্রুয়ারির পাপ!
ধিক্ জ্ঞান পাপী তোরা
ইতিহাস তোদের ক্ষমিবে না,
ইতিহাসের ডাষ্টবিনে তোদের ঠাঁই হবে,
সুদে আসলে জমবে আভিশাপ!

 

সাত সকালে সূর্যকে ঢেকে
কুয়াশা ভাবে নিজেকে শক্তিমান!
বাড়লে বেলা সাঙ্গ খেলা
কুয়াশা নিশ্চিহ্ন ম্রিয়মাণ!

 

সময় ভেদে কেউ শক্তিমান
আবার নিমিষেই সে ই ম্রিয়মাণ;
চিরদিন থাকে না কারো
দাপট যশ খ্যাতি মান!
১৪ ফেব্রুয়ারি হোক চির অম্লান
নিয়ে স্বকীয় সম্মান!

এস ইসলাম/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category