Tuesday, November 3rd, 2020




হাইকোর্টে এসেছে গুলশানের সেই দুই বোন

হাইকোর্টে এসেছে গুলশানের সেই দুই বোন

কালের সংবাদ ডেস্ক: সংগীতশিল্পী ফেরদৌস ওয়াহিদের ভাই পাইলট মোস্তফা জগলুল ওয়াহিদের দুই মেয়ে মুশফিকা মোস্তফা ও মোবাশ্বেরা মোস্তফা হাইকোর্টে হাজির হয়েছেন। একইসঙ্গে হাইকোর্টে এসেছেন তাদের বাবার দ্বিতীয় স্ত্রী আনজু কাপুর ও গুলশান থানার ওসি।

বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি আহমেদ সোহেলের ভার্চ্যুয়াল হাইকোর্ট বেঞ্চের আদেশে আজ মঙ্গলবার (৩ নভেম্বর) হাজির হন তাঁরা।

ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক এসব তথ্য জানিয়েছেন।

গত ২৬ অক্টোবর রাত সোয়া ৭টায় বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি আহমেদ সোহেলের হাইকোর্ট বেঞ্চ এক আদেশে দুই বোনকে পুলিশ পাহারায় পৈতৃক বাড়িতে ঢোকার ব্যবস্থা নিতে গুলশান থানার ওসিকে নির্দেশ দেন।

ওই নির্দেশ মেনে পুলিশ বিমানচালক মরহুম মোস্তফা জগলুল ওয়াহিদের দুই মেয়ে মুশফিকা মোস্তফা ও মোবাশ্বেরা মোস্তফাকে রাতেই রাজধানীর গুলশান ২ নম্বরে (৯৫ নম্বর রোডের ৪ নম্বর বাড়ি) তাঁদের পৈতৃক বাড়িতে ঢোকার ব্যবস্থা করে। একই সঙ্গে তাঁদের নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়।

এছাড়া ৩ নভেম্বর পর্যন্ত ওই বাসায় দুই বোনের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে বলা হয়েছে। পাশাপাশি গুলশান থানার ওসিসহ ৩ নভেম্বর দুই বোন এবং ওই বাড়িতে থাকা আঞ্জু কাপুরকে হাইকোর্টে হাজির হতে বলা হয়।

জানা যায়, সংগীতশিল্পী ফেরদৌস ওয়াহিদের ভাই পাইলট মোস্তফা জগলুল ওয়াহিদ গত ১০ অক্টোবর মারা যান। তিনি ক্যানসারে আক্রান্ত ছিলেন। তাঁর প্রথম স্ত্রীর সঙ্গে বিচ্ছেদ হয় ২০০৫ সালে। বড় মেয়ে মুশফিকা লেখাপড়ার জন্য ২০১৩ সালে দেশ ছাড়েন। মোবাশ্বেরা বিয়ের পর আমেরিকা চলে যান।

ফলে মোস্তফা জগলুল ওয়াহিদ একা হয়ে পড়েন। এ সময় তাঁর সঙ্গে ভারতের বেঙ্গালুরের মেয়ে আঞ্জু কাপুরের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এরই সূত্র ধরে ২০১৩ সালে তাঁদের বিয়ে হয় বলে জানান সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট ওয়াজি উল্লাহ।

মুশফিকা ও মোবাশ্বেরার অভিযোগ ছিল, তাঁরা গত ২৪ অক্টোবর সকাল থেকে বাড়ির সামনে দাঁড়িয়ে ছিলেন। কিন্তু তাঁদের বাড়িতে ঢুকতে দেওয়া হয়নি।

এস ইসলাম/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category