লালমনিরহাটে প্রসুতির মৃত্যু তদন্তে ৩ সদস্যের কমিটি গঠন

তন্ময় আহমেদ নয়ন, লালমনিরহাটঃ লালমনিরহাট  সদর হাসপাতালের গাইনী ও অবস ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার রোজিনা বেগম (২২) নামে এক প্রসুতির মৃত্যু হয়েছে। প্রসুতির স্বামী ও স্বজনদের অভিযোগ চিকিৎসকের অবহেলায় তার মৃত্যু হয়েছে।
জানা গেছে, কালীগঞ্জ উপজেলার কাশিরাম গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের স্ত্রী রোজিনা বেগম গত ১২মার্চ সকাল ১০টা ১৫ মিনিটে প্রসব বেদনা নিয়ে লালমনিরহাট জেলা সদর হাসপাতালে গাইনী ও অব: ওয়ার্ডে ভর্তি হয়। ওইদিন দুপুরে সদর হাসপাতালের সিনিয়ার কনসালটেন্ট ডাঃ মোছাঃ মাহমুদা বেগম তার সিজার করেন। সিজারে সাড়ে ৪কেজি ওজনের এক কন্যা শিশুর জন্ম হয়। সিজারের ২দিন পর বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টায় প্রসুতি রোগী রোজিনা বেগম গাইনী ও অব: ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়। মৃত্যুর প্রাথমিক কারণ সর্ম্পকে জানা যায় রক্ত শূন্যতা। সিজার করার সময় তার শরীরে রক্তের হিমোগ্লোবিনের পরিমান ছিল শতকরা ২০ ভাগ।
চিকিৎসক জানান, প্রসূতি মায়ের সিজারের আগে অথবা পরে প্রসূতি মায়ের শরীরে রক্ত দিলে তার মৃত্যু হয়তো হতো না। প্রসুতির স্বামী আব্দুর রাজ্জাক জানান, চিকিৎসার অবহেলার কারনে তার স্ত্রীর মৃত্যু হয়েছে। তার স্ত্রীর সিজার করার পরে সিনিয়র কনসালটেন্ট ডাঃ মোছাঃ মাহমুদা বেগমসহ কোন চিকিৎসক নিবির পর্যবেক্ষণ ও খোঁজ খবর রাখেনি।
এ ব্যাপারে লালমনিরহাট সদর হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডাঃ গোলাম মোহাম্মদ জানান, প্রসুতি মায়ের মৃত্যুর কারণ অনুসন্ধানে ৩ সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটির প্রধান করা হয়েছে, সার্জারী বিভাগের প্রধান সিনিয়ার কনসালটেন্ট ডাঃ আব্দুল হাদীকে। তদন্ত প্রতিবেদনে চিকিৎসকের অবহেলায় প্রসূতি মায়ের মৃত্যুর কারণ চিহ্নিত হলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
এম কে ইসলাম/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category