রোজায় পেট ঠাণ্ডা রাখতে যা খাবেন

কালের সংবাদ অনলাইন ডেস্ক: একদিকে রমজান মাস, অন্যদিকে গরম। এই সময় সারাদিনের উপবাসের পর প্রয়োজন পুষ্টিকর খাবারে পেট ভরানো। কারণ গরমে সব ধরনের খাবার সহজে হজমও হয় না। এজন্য এই সময়ে পেট ঠাণ্ডা রাখা খুবই জরুরি।

পেট ঠাণ্ডা থাকলে শরীরও ভেতর থেকে ঠাণ্ডা থাকে। হজম ভালো হলে বাড়বে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা। খাবার থেকে পুষ্টি মিলবে শরীরে। সেজন্য প্রতিদিনের খাবারে কিছু স্বাস্থ্যকর খাবার খেতে হবে। জেনে নিন কোন খাবারগুলো আপনার পেট ঠাণ্ডা রাখতে সাহায্য করবে-

ডাবের পানি

ইফতারে ডাপের পানি রাখা যে কতটা উপকারী তা আপনি টের না পেলেও শরীর বুঝবে। ডাবের পানি শরীরকে ভিতর থেকে সুস্থ রাখে, আর পেট ঠাণ্ডা রাখে। ডাবের পানিকে বলা হয় ন্যাচারাল এনার্জি ড্রিংক। এতে আছে প্রচুর পরিমাণে ন্যাচারাল ইলেক্ট্রোলাইট। যা আমাদের শরীরকে হাইড্রেটেড রাখে। আর তাই শরীরও ঠাণ্ডা থাকে, ক্লান্তিভাবও অনেক কম আসে।

শসা

শসায় পানির পরিমাণ বেশি। তাই ইফতারে প্রচুর শসা খেতে পারেন। শরীর আর পেট ঠাণ্ডা রাখার পাশাপাশি শসা ত্বকের জন্যও খুব উপকারী।

তরমুজ

এই সময়ের ফল তরমুজ। এতে ৯৫ শতাংশ পর্যন্ত পানি রয়েছে। শরীরের পানির ঘাটতি দূর করতে তরমুজের বিকল্প নেই। এই ফলটি শরীরকে ভিতর থেকে খুবই ঠাণ্ডা রাখে। পাশাপাশি এতে আছে ভিটামিন আর মিনারেলস, তাই গরমে তরমুজ অবশ্যই খেতে হবে।

লেবু

শরীরের ক্লান্তি দূর করতে লেবুর বিকল্প নেই। শরীরের এনার্জি ফিরিয়ে আনতে আর শরীর ঠাণ্ডা রাখতে লেবু খুবই কার্যকরী। শরীরকে বিষমুক্ত করার সেরা দাওয়াই হলো লেবু।

পুদিনা পাতা

গরমে পুদিনা পাতা দিয়ে এক গ্লাস লেবুর শরবত যেন প্রাণ জুরায়! ইফতারে কিংবা ইফতারের পরে পুদিনা পাতার শরবত খেয়ে নিন। সারাদিন শরীর ঠাণ্ডা থাকবে। পেটের সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন।

টক দই 

শরীর ঠাণ্ডা রাখতে টক দইয়ের জুরি মেলা ভার। টক দই খাবার যেমন হজম করায়, তেমনই শরীরের ভিতরের তাপকে কম করতে সাহায্য করে।

লাউ

শরীরকে ভেতর থেকে ঠাণ্ডা রাখে এই সবজি। চিকিৎসকেরাও লাউ খেতে বলেন শরীর ঠাণ্ডা রাখতে। এই গরমে শরীর ঠিক রাখতে অবশ্যই পাতে নিয়মিত লাউ রাখুন।

এস ইসলাম/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category