রাজারহাটে ইউপি চেয়ারম্যানের নামে গাছ কর্তনের মামলা

এ.এস লিমন, রাজারহাট, কুড়িগ্রাম:  কুড়িগ্রামের রাজারহাট উপজেলার ঘড়িয়ালডাঙ্গা ইউপির কাশেম বাজার-ভীমর্শমার সরকারি রাস্তার ১৭টি ইউক্যালিপ্টার্স গাছ কাটার অভিযোগ উঠেছে চেয়ারম্যান রবীন্দ্রনাথ কর্মকারের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় (২মার্চ) সোমবার সন্ধ্যায় স্থানীয় একটি স’মিল থেকে ১৭টি গাছের ৪০টি গুড়ি জব্দ করেছে রাজারহাট থানা পুলিশ। পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, নিয়ম-নীতির কোন ধরনের তোয়াক্কা না করে উপজেলার ঘড়িয়ালডাঙ্গা ইউপি চেয়ারম্যান রবীন্দ্র নাথ কর্মকার সরকারি রাস্তার ১৭টি ইউক্যালিপ্টার্স গাছ কর্তন করে। এলাকায় বিষয়টি জানাজানি হলে বিরুপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রাজারহাট থানা পুলিশ সোমবার সন্ধ্যায় ঘটনাস্থলে গিয়ে বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে প্রাক্তন ইউপি সদস্য আলহাজ্ব মতিয়ার রহমানের স’মিল থেকে কর্তনকৃত গাছগুলোর ৪০টি গুড়ি জব্দ করে স’মিল মালিক আলহাজ্ব মতিয়ার রহমানের হেফাজতে রাখে। এ ঘটনায় ঘড়িয়ালডাঙ্গা ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকতা মো. আব্দুর রাজ্জাক বাদী হয়ে ইউপি চেয়ারম্যান রবীন্দ্রনাথ কর্মকারকে প্রধান আসামী করে অজ্ঞাত নামীয় ৫/৬ জনকে আসামী করে রাজারহাট থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নং-০৩। তাং- ০২-০৩-২০২০ইং।

ঘড়িয়ালডাঙ্গা ইউপি চেয়ারম্যান রবীন্দ্রনাথ কর্মকারের নিকট গাছ কাটার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, সরকার বাড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কাজের জন্য আবেদন করেছিল। এরই প্রেক্ষিতে রাস্তাটি ইউনিয়ন পরিষদের হওয়ায় বিষয়টি নিয়ে উপজেলার মাসিক সমন্বয় সভায় একাধিকবার আলোচনা করে সকল কাগজপত্র প্রসেসিং করে ওই রাস্তার ২০টি গাছ ২৭ হাজার টাকা মূল্যে ওই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কাজের জন্য দিয়ে দেই।

এ বিষয়ে রাজারহাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাঃ যোবায়ের হোসেন জানান, অবৈধভাবে সরকারি রাস্তার গাছ কাটা দন্ডনীয় অপরাধ । এ ধরনের সংবাদ আমি পেয়েছি। ঘটনা যদি সঠিক হয় ঘটনার সঙ্গে জড়িত যিনিই হউন তাকে আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে। রাজারহাট থানার অফিসার ইনচার্জ কৃষ্ণ কুমার সরকার নিশ্চিত করে বলেন, চেয়ারম্যানসহ আরও অজ্ঞাত নামীয় ৫/৬ জনকে আসামী করে থানায় একটি মামলা রুজু হয়েছে। আসামীদের গ্রেপ্তারে পুলিশি অভিযান চলছে।

এস ইসলাম/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category