রংপুর-ঢাকা মহাসড়কে অবৈধ স্থাপনার উচ্ছেদ অভিযান

কালের সংবাদ অনলাইন ডেস্ক: রংপুর-ঢাকা মহাসড়কের গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ থেকে ধাপেরহাট পর্যন্ত দুই পাশে অবৈধভাবে গড়ে উঠা স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান শুরু করেছে সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগ।সোমবার (৪ নভেম্বর) সকাল ১০টার দিকে গোবিন্দগঞ্জের কাটাখালি (বালুয়া বাজার) এলাকায় বুলডোজার দিয়ে এসব অবৈধ স্থাপনায় উচ্ছেদ অভিযান চালানো হয়।

উচ্ছেদ অভিযানে কাটাখালি ব্রিজ ও বালুয়া বাজার এলাকার মহাসড়কের দু’পাশে গড়ে উঠা কাচা-পাকা ঘর, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, গাছসহ প্রায় শতাধিক অবৈধ স্থাপনা গুঁড়িয়ে দেয়া হয়।উচ্ছেদ অভিযানে সড়ক পরিবহণ ও সেতু মন্ত্রনালয়ের যুগ্ন সচিব মাহাবুবুর রহমান ফারুকী, গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. নাজির হোসেন, সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগের গাইবান্ধার নির্বাহী প্রকৌশলী আসাদুজ্জামান উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া এসময় গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার ফায়ার সার্ভিসকর্মী এবং আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

সড়ক পরিবহণ ও সেতু মন্ত্রনালয়ের যুগ্ন সচিব মাহাবুবুর রহমান ফারুকী বলেন, ‘অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে সরকার কঠোর অবস্থান নিয়েছেন। এরেই ধারাবাহিকতায় মহাসড়কের গাইবান্ধার ৩২ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে অবৈধভাবে গড়ে উঠা প্রায় এক হাজার স্থাপনা উচ্ছেদের সিদ্ধান্ত হয়। সিদ্ধান্ত অনুযায়ী উচ্ছেদ অভিযান শুরু করা হয়েছে। অভিযানের প্রথম দিনে কাটাখালি ব্রিজ ও বালুয়া এলাকার প্রায় শতাধিক স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়।

আগামি তিনদিন পর্যায়ক্রমে উচ্ছেদ অভিযান চলমান থাকবে। এছাড়া ঘোড়াঘাট ও সুন্দরগঞ্জ সড়কেও উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনার ঘোষণা সড়ক বিভাগের’।এ বিষয়ে গাইবান্ধা সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আসাদুজ্জামান বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরে এসব অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের জন্য সড়ক ও জনপথ বিভাগ দখলদারকে বারবার অনুরোধ করে আসছিলো।

আইনি নোটিশ ও মাইকিং করার পরেও এতোদিন তারা কোনও কর্ণপাত করেনি। অবশেষে এসব অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করার ফলে জনভোগান্তি কমে আসবে বলে।’এরআগে, মহাসড়কের দুই পাশে গড়ে উঠা সকল বৈধ স্থাপনা সরানোর নির্দেশ দিয়ে আইনী প্রক্রিয়ার মাধ্যমে দখলকারীদের নোটিশ ও এলাকায় মাইকিং করে সড়ক ও জনপথ (সওজ) কর্তৃপক্ষ।

এস ইসলাম/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category