বাগেরহাটে স্বাস্থ্যবিধি মেনে বাস চলাচল শুরু

তানজীম আহমেদ, বাগেরহাট: বাগেরহাটে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের ঝুঁকি নিয়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে বাস চলাচল শুরু করেছে। সোমবার (১ জুন) সকালে বাগেরহাট কেন্দ্রীয় বাসষ্ট্যান্ড থেকে দুরপাল্লাসহ অভ্যন্তরীণ ১৬টি রুটের এসব বাস গন্তব্যে ছেড়ে যায়। এসব রুটে ৬০ শতাংশ বাসের ভাড়া বৃদ্ধি করে স্বাস্থ্যবিধি মেনে বাগেরহাট আন্ত:জেলা বাস মিনিবাস মালিক সমিতি ও শ্রমিক ইউনিয়ন এসব রুটে বাস ছাড়ছে। ধারণক্ষমতার অর্ধেক যাত্রী পরিবহণ করছে যাত্রীবাহি বাসগুলো।

সকালে কেন্দ্রীয় বাসস্ট্যান্ডে দেখা যায়, বাস চালক ও সহকারির মূখে মাক্স, হাতে হ্যান্ড গ্লাভস রয়েছে। যাত্রীদের শরীরের তাপমাত্রা মেপে ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার করে বাসে উঠানো হচ্ছে।সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে দুই সিটের জায়গায় একজন যাত্রী বসছেন। তবে শেষ পর্যন্ত বাস শ্রমিক ও চালকরা স্বাস্থ্যবিকধি মেনে পরিহন চালাবেন কিনা সে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন অনেকে।

যাত্রী এনামুল কবির, লালু ও রেহেনাসহ কয়েকজন বলেন, অকেদিন ধরে ঘর থেকে বের হই না। সরকারের ঘোষনার পরে আজ বের হলাম।বাড়ি থেকে মাস্ক পরে আসছি। সাথে হ্যান্ড স্যানিটাইজার আছে। মাঝে মাঝে ব্যবহার করছি। চেষ্টা করছি লোকজন থেকে নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখতে। অতিরিক্ত ভাড়া দিয়েও যে গন্তব্যে পৌছাতে পারছি এটাই অনেক কিছু।

ইউনুস আলী, রফিকসহ কয়েকজন বাস চালক বলেন, স্বাস্থ্যবিধি মেনে আমরা রাস্তায় গাড়ি চালাচ্ছি। ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখতে ধারণ ক্ষমতার অর্ধেক অর্থ্যাৎ দুইটি সিটে একেকজন যাত্রী বহন করছি। একজনের পাশের আরেকজনকে বসতে দিচ্ছি না। মুখে মাক্স না থাকলে কোন যাত্রীদের আমরা বাসে উঠতে দিচ্ছিনা। বাসে ওঠার আগে হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করে ওঠানোর চেষ্টা করছিবাগেরহাট শ্রমিক ইউনিয়ন নেতা সিরাজুল ইসলাম বলেন, স্বাস্থ্যবিধি মেনে সকাল থেকে বাগেরহাটের বিভিন্ন রুটে বাস চলাচল শুরু হয়েছে। যাত্রীদের সামাজিক দুরত্ব নিশ্চিত করতে বাসের ধারণক্ষমতার অর্ধেক যাত্রী পরিবহণ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। যার কারনে এই রুটে যাত্রীদের কাছ থেকে ৬০ শতাংশ ভাড়া বেশি নেয়া হচ্ছে।

বাগেরহাট আন্ত:জেলা বাস মিনিবাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল বাকি তালুকদার বলেন, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সরকারের দেয়া স্বাস্থ্যবিধি মেনে সকাল থেকে জেলার ১৬টি রুটে বাস চলাচল শুরু হয়েছে। প্রতিটি বাসে হাত ধোয়ার ব্যবস্থা রাখা, হ্যান্ড স্যানিটাইজার এবং চালক ও তার সহকারিদের মুখে মাক্স ও হ্যান্ড গ্লাভস রাখা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। সরকারের নির্দেশনা মেনে না চললে বাস মালিক ও চালকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এস ইসলাম/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category