বদলগাছীতে বালু মহাল লীজ নিয়ে মালিকানাধীন বাগানে অবৈধভাবে মাটি কাটার অভিযোগ

মোঃ এমদাদুল হক দুলু, (বদলগাছী, নওগাঁ): নওগাঁর বদলগাছী উপজেলার বালুভরা ইউনিয়নের রামসাপুর মৌজায় ছোট যমুনা নদীর পার্শ্বে হিন্দু সম্প্রদায়ের মালিকানাধীন বাগান ভিটা জমিতে জোরপূর্বক মাটি কাটার অভিযোগে থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে বালু বোঝাই দুটি ট্রলার নৌকা ও একটি মটর সাইকেল জব্দ করে থানায় আনে। ঘটনাটি ঘটেছে গত সোমবার দুপুরে দিকে। অতঃপর ঐদিন বিকালে অবৈধভাবে মালিকানা জমিতে মাটি-বালি কর্তনকারীদের বিরুদ্ধে আইনগত কোন ব্যবস্থা না নিয়ে ট্রলার নৌকা দুটি ও মটর সাইকেল থানা থেকে ছেড়ে দেওয়া হয় বলে ভুক্তভোগীদের ভাষ্যে জানা গেছে।

সরেজমিনে তথ্য সংগ্রহকালে কটকবাড়ী গ্রামের মৃত নরেন্দ্র নাথ মন্ডলের ছেলে অজিত চন্দ্র মন্ডল সহ এলাকাবাসী বলেন, শতাধীক বছর যাবত রামসাপুর গ্রামের শৈলেন চন্দ্র মন্ডল পিতা মৃত ললিত চন্দ্র মন্ডল এর বংশধর ছোট যমুনা নদীর পাশে প্রায় ৪/৫ বিঘা জমিতে মেহগুনী, কড়াই সহ বিভিন্ন জাতের গাছ পালা পর্যায়ক্রমে লেগে ভোগদখল করে আসচ্ছে। এছাড়াও তারা বলেন বালুভরা গ্রামের মোঃ মোবারক হোসেন মোল্লার ছেলে বালু মহাল সাব লীজ গ্রহিতা মানিক হোসেন ৪০/৫০ জন লোকজন ও ৭টি ট্রলার নৌকা নিয়ে উক্ত জমির বাগানের পূর্ব ধারের মাটি এবং বাগানের ভিতরের মাটি জোরপূর্বক কেটে ট্রলার নৌকা যোগে নিয়ে বিক্রি করছে। এসময় জমির মালিক ও ভোগ দখলকারীরা বাঁধা দিলে তাদেরকে বিভিন্ন ধরনের হুমকি দেয় এবং বলে ২৬ লাখ টাকা দিয়ে বদলগাছী ছোট যমুনা নদীর বালু ডাককারীর নিকট থেকে তারা ডেকে নিয়েছে। বাল-মাটি তাঁরা মাটি কাটবেই সেখানে বাধা দিয়ে কোন লাভ হবেনা।

অবশেষে জমির মালিক কটকবাড়ী গ্রামের মৃত নলিক চন্দ্র মন্ডলের ছেলে শৈলেন ও অখিল চন্দ্র মন্ডল ২৭ জুন থানায় অভিযোগ করলে ২৮ জুন থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে আসতে চেয়ে না আসায় ২৯ জুন সাব লীজ গ্রহিতা মানিক ৪০/৫০ জন লোক ও ৭টি ট্রলার নৌকা নিয়ে এসে উক্ত জমির উপরে অবস্থিত বাগানের ভিতর থেকে আবারো মাটি কাটতে থাকে। এতে বড় বড় কড়াই ও মেহগুনী গাছ সহ বিভিন্ন প্রজাতির গাছ হুমকির মূখে পড়ে। ঐ স্থানে আর এক দিন মাটি কাটলে ৫০ হাজার টাকা মূল্যের একটি কড়াই গাছসহ কয়েকটি বড় বড় গাছ নদীতে উপড়ে পরে যেত।

এসময় থানায় খবর দিলে এসআই আব্দুল খালেক সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে বালু বোঝাই দুটি ট্রলার নৌকা ও একটি মটর সাইকেল জব্দ করে থানায় নিয়ে আসে। অতঃপর বিকালে থানা পুলিশ ঐ দুটি ট্রলার নৌকা ও মটর সাইকেল ছেড়ে দেয়।

বদলগাছী উপজেলার ছোট যমুনা নদীর বালু মহাল ইজারাদার মফিজ উদ্দীন এর সাথে মোবাইল ফোনে কথা বললে তিনি বলেন, আমরা মাটি কাটিনি বালু কেটেছি আমি সরকারের কাছ থেকে লীজ নিয়েছি বালু মহাল। বালু যোখানে থাকবে আমি সেখানেই বালু কাটতে পারবো। বালু যদি কারো বাড়ির ভিতরে থাকে সোট সরকারের সম্পত্তি। এছাড়াও যে বিষয় নিয়ে আপনি কথা বলছেন সে বিষয়টি নিয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও ম্যাজিস্ট্রেট স্যারের সাথে আমার কথা হয়েছে তারা মাপ যোগ করে সীমানা নির্ধারন করে দিবে।

এবিষয়ে বদলগাছী থানার অফিসার ইনচার্জ চেীধুরী জোবায়ের আহাম্মদের সঙ্গে মোবাইল ফোনে কথা বললে দুটি নৌকা ও ১টি মোটরসাইকেল আটকের সত্যতা স্বীকার করে তিনি বলেন বালুকাটা ব্যক্তি মোঃ মানিক হোসেন বালু মহাল লীজ নিয়েছে এবং অভিযোগকারীদের জমি একই সঙ্গে রয়েছে। এছাড়াও তিনি বলেন সহকারী কমিশনার (ভুমি) উক্ত জমি মাপযোগ করে যার যার সীমানায় লাল পতাকা দিয়ে নিদ্ধারণ করে দিবে। এজন্য নৌকা ও মোটরসাইকেল ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ নাহারুল ইসলাম সঙ্গে কথা বললে তিনি বলেন, বর্তমান বালু মহাল লীজ গ্রহিতা আমাদের কাছ থেকে বালু মহালের পয়েন্টগুলো বুঝে না নিয়েই তারা বালু উত্তলোন করছেন। তিনি আরো বলেন, যেখানে সেখানে এলোপাতারি ভাবে বালু উত্তলোন করা যাবেনা। দুটি ট্রলার নৌকা ও মোটরসাইকেল জব্দ করা বিষয়ে তিনি কিছুই জানেনা। এ বিষয়ে থানা পুলিশ ভালো বলতে পারবেন।

এবিষয়ে মোবাইল ফোনে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুহাঃ আবু তাহির বলেন, বালু মহাল যে লীজ দিয়েছে সে কাগজ আমি এখন পাইনি। উল্লেখিত বিষয়ে আমি কিছু জানিনা।

এস ইসলাম/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category