Wednesday, January 13th, 2021




প্রেমিককে কুপিয়ে হত্যার পর প্রেমিকার আত্মসমর্পণ

প্রেমিককে কুপিয়ে হত্যার পর প্রেমিকার আত্মসমর্পণ

কালের সংবাদ আন্তর্জাতিক ডেস্ক: প্রেম স্কুলজীবন থেকে। কিন্তু ইদানীং সম্পর্ক এসে দাঁড়িয়েছিল একেবারে তলানিতে। বিয়েতেও আর সায় ছিল না প্রেমিকের। ক্রমেই বাড়ছিল তিক্ততা। অনেক সময়ই এমন ক্ষেত্রে ব্রেক আপ হয়ে যায়। কিন্তু ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশের এক তরুণ-তরুণীর প্রেমকাহিনিতে যেভাবে রক্তের ছিটে এসে লাগল তা ভয়ংকর। ২১ বছরের প্রেমিকা শেষ পর্যন্ত ব্যস্ত রাস্তায় তরোয়াল দিয়ে কুপিয়ে মারল তার প্রেমিককে। তারপর আত্মসমর্পণ করল পুলিশের কাছে।

সোমবার (১১ জানুয়ারি) রাতে অন্ধ্রপ্রদেশের পশ্চিম গোদাবরী জেলায় ঘটেছে এই মর্মান্তিক ঘটনা। ২২ বছরের তানাজি নাইডু বাইকে করে বাড়ি ফিরছিল। তখনই পাশের গ্রামের পবনী তার ওপরে হামলা করে তরোয়াল নিয়ে। শেষ পর্যন্ত তানাজিকে খুন করে সেখানেই দাঁড়িয়ে থাকে সে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছলে আত্মসমর্পণ করে।

কিন্তু কেন সে খুন করল তার প্রেমিককে? পুলিশের কাছে সে কথা জানাতে গিয়ে পবনী পরিষ্কার জানিয়েছে, সে অত্যন্ত বিরক্ত হয়ে উঠেছিল তানাজির ওপরে। দিন দিন সেই বিরক্তি বাড়ছিল। তাই আর সহ্য করতে না পেরে খুনের সিদ্ধান্ত নেয়।

পশ্চিম গোদাবরীর পুলিশের এসপি কে নারায়ণ নায়েক জানান, ‘ওদের দু’জনের মধ্যে সম্পর্ক ছিল স্কুলে পড়ার সময় থেকেই। কিন্তু সম্প্রতি ছেলেটি মেয়েটিকে এড়িয়ে চলছিল। বিয়ে করতেও রাজি ছিল না। উলটে টাকা চেয়ে বিরক্ত করছিল মেয়েটিকে। সব মিলিয়ে তাকে আর সহ্য হচ্ছিল না মেয়েটির। তাই শেষে ধৈর্য হারিয়ে খুনের পরিকল্পনা করে অভিযুক্ত।’

তিনি আরও জানান, পুলিশ যখন ঘটনাস্থলে পৌঁছায় তখন এক হাতে তরোয়াল, অন্য হাতে ফোন ধরে কারও সঙ্গে কথা বলছিল অভিযুক্ত। পালানোর কোনও চেষ্টাও করেনি সে। মৃত তরুণের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। ঘটনার পেছনে আর কোনও উদ্দেশ্য ছিল কিনা তা জানতে পবনীকে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে পুলিশ।

সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন

এস ইসলাম/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category