Tuesday, October 27th, 2020




পাথরঘাটা কাকচিড়া আজিমপুর গ্রামের ভূমিদস্যু বাবুল ও তার ছেলেরা মিলে প্রতিবেশী জালাল দফাদারের বসতবাড়ি দখল চেষ্টা

পাথরঘাটা কাকচিড়া আজিমপুর গ্রামের ভূমিদস্যু বাবুল ও তার ছেলেরা মিলে প্রতিবেশী জালাল দফাদারের বসতবাড়ি দখলের চেষ্টা

মোস্তাফিজ জিতু, বরগুনাঃ গত ১৭ই অক্টোবর পাথরঘাটা কাকচিড়া আজিমপুর গ্রামের ভূমিদস্যু ও বনদস্যু বাবুল ও তার ছেলে সবুজ ও সুমন প্রতিবেশী জালাল দফাদারের বসতবাড়ি জোর জবর দখল করতে গেলে জালাল ও তার স্ত্রী নাসিমা বাধা প্রদান করলে তাদের উপর চড়াও হয়ে একপর্যায়ে তাদেরকে লাঞ্চিত করেন।

এ ব্যাপারে পাথরঘাটা থানায় অভিযোগ গেলে পাথরঘাটা থানার এস আই শাহজালাল ও হারুনুর রশিদ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং ভূমিদস্যু বাবুলকে প্রতিবেশী জালালের জমি ছেড়ে দেওয়ার নির্দেশ দেন। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে দেখা যায় উক্ত এলাকায় সরকারি বন রয়েছে উক্ত বন থেকে ভূমিদস্যু বাবুল ও তার ছেলে সরকারি গাছ কেটে লুকিয়ে রেখেছে এ ব্যাপারে গণমাধ্যমকর্মী গন তাকে জিজ্ঞেস করলে বাবুল ও তার ছেলে সবুজ ও সুৃমন গনমাধ্যম কর্মীর সাথে দুর্ব্যবহার করে উক্ত এলাকার বন প্রহরী গোলাম কবিরের নির্দেশে কেটেছে বলে জানান, বন প্রহরী গোলাম কবিরের সাথে মুঠোফোনে জানা যায় এ ব্যাপারে তিনি কিছুই জানেন না। পরিশেষে পাথরঘাটা উপজেলার বন অফিসার মনিরুজ্জামানের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি বনদস্যু বাবুলের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নিবেন বলে জানান।

এর পূর্বেও একাধিকবার জালাল ও তার স্ত্রী কে ভূমিদস্যু বাবুল বহু মারধর ও নির্যাতন করছে বলে অভিযোগ রয়েছে। ইহার সত্যতা জানার জন্য উক্ত এলাকার ইউপি সদস্য মোহাম্মদ হিরো গোলদারের সাথে সরাসরি যোগাযোগ করলে তিনি জানান, এ ব্যাপারে একাধিকবার তিনি সালিশ দরবার করেছেন কোনক্রমেই বাবুলকে থামানো যায় না বাবুল জালাল দফাদরের ভিতরে কোনো জমিই পাবে না বলে তিনি সাংবাদিকদের জানান। তার পরেও অহেতুক গায়ের জোরে বাবুল ও তার ছেলেরা জোর জবর দখল করে জালালের জমি ভোগ দখল করে। উক্ত ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বাবুল একজন ভূমিদস্যু বনদস্যু তারাও বাবুলের অত্যাচারে অতিষ্ঠ তারা আরো জানান বাবুলের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা না নিলে যেকোনো সময়ে একটি দুর্ঘটনা ঘটাতে পারে।

 

এস ইসলাম/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category