Sunday, January 17th, 2021




নওগাঁ পৌর নির্বাচনী প্রচারনায় বিএনপি প্রার্থীর উপর হামলা, সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ

নওগাঁ পৌর নির্বাচনী প্রচারনায় বিএনপি প্রার্থীর উপর হামলা, সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন, নওগাঁ: আগামী ৩০ জানুয়ারী ব্যালটের মাধ্যমে তৃতীয় ধাপে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে নওগাঁ পৌর সভা নির্বাচন। নির্বাচনে বিএনপির মনোনীত মেয়র প্রার্থী ও বর্তমান মেয়র নজমুল হক ও তার সমর্থকরা নির্বাচনী প্রচারণা চালাতে গিয়ে শনিবার রাতে হামলা ও মারধরের শিকার হয়েছেন।

এই ঘটনায় রবিবার দুপুরে জেলা বিএনপির কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলন করা হয়। হামলায় বিএনপির প্রার্থীসহ অন্তত ১০জন আহত হয়েছেন বলে জানানো হয়। শনিবার রাত ৮টার দিকে নওগাঁ শহরের নওযোয়ান মাঠ এলাকায় গণসংযোগ চালানোর সময় বিএনপির প্রার্থী ও তার সমর্থকদের ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে।

সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন জেলা বিএনপির আহাবায়ক হাফিজুর রহমান। সংবাদ সম্মেলনে বলা হয় গতকাল শনিবার বিকাল ৫টা থেকে নওগাঁ পৌরসভার ২ নং ওয়ার্ডের মাস্টারপাড়া এলাকার জনকল্যাণমোড় থেকে পায়ে হেটে গণসংযোগ শুরু করেন বিএনপির প্রার্থী ও সমর্থকেরা। রাত ৮টার দিকে নওযোয়ান মাঠের উত্তরপাশে কাচাবাজার এলাকায় প্রচারণা চালানোর সময় ১০-১২টি মোটরসাইকেল নিয়ে আসা হেলমেটধারী ২০-২৫ যুবক বিএনপির প্রার্থী ও সমর্থকদের ওপর হামলা চালায়।

হামলায় বিএনপির প্রার্থী নজমুল হক সনি, তার ছেলে সাদমান নিলয়, পৌর বিএনপির আহ্বায়ক আব্দুস শুকুর, সদস্য এটিএম ফিরোজ হোসেন, আকলাকুর রহমান ও আব্দুল হাকিম, নওগাঁ জেলা জাতীয়তাবাদী সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংসদের (জাসাস) সাধারণ সম্পাদক এম কে ইকবাল, পৌরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ড বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আলাল হোসেন, নওগাঁ জেলা মৎস্যজীবী দলের আহ্বায়ক শফিকুল ইসলাম ও জেলা যুবদলের দপ্তর সম্পাদক ময়নুল হক আহত হয়েছেন। বিএনপির অন্যান্য নেতাকর্মী ও স্থানীয় লোকজন আহতদের উদ্ধার করে নওগাঁ সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন।

এ সময় নওযোয়ান মাঠে দাঁড়িয়ে থাকা একটি প্রাইভেট কার ও দুটি মোটরসাইকেল ভাঙচুর করে হামলাকারীরা।

একই রাতে শহরের দয়ালের মোড় ও জনকল্যাণ মোড় এলাকায় বিএনপির প্রচার ক্যাম্প ভাঙচুর করে দুর্বৃত্তরা। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন নওগাঁ পৌরসভার মেয়র ও বিএনপির মেয়র প্রার্থী নজমুল হক সনি, জেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম ধলু, জেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক নাসির উদ্দিন আহম্মেদ, এ্যাড. রফিকুল ইসলাম, সাবেক সংসদ সদস্য রায়হান আকতার রনিসহ বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদলের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। পরে এই নাক্কারজনক হামলার প্রতিবাদে জেলা বিএনপির দলীয় অফিসের সামনে এক বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

বিএনপির প্রার্থী নজমুল হক সনি বলেন, প্রচারণা চালানোর সময় আওয়ামী লীগের প্রার্থীর সমর্থকেরা সন্ত্রাসী কায়দায় আমাদের ওপর হামলা চালিয়েছে।

তাদের হামলার মূল লক্ষ্য ছিলাম আমি। কিন্তু আমাকে বাঁচাতে গিয়ে আমার ছেলে ও কয়েকজন সমর্থক গুরুত্বর আহত হয়েছেন। হামলার পর সদর হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে আমি ছাড়া পেলেও অন্যরা এখনও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

তিনি আরও বলেন, তাদের হামলার উদ্দেশ্য আমাদের কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে ভয়-ভীতির পরিবেশ সৃষ্টি করা, যাতে কেউ ধানের শীষের পক্ষে ভোট চাওয়ার সাহস না করে। আনুষ্ঠানিক ভাবে প্রচারণা শুরুর পর থেকেই পৌর এলাকায় ইতোমধ্যে ভোট সন্ত্রাস শুরু করেছে আওয়ামী লীগ বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী ও জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি নির্মল কৃষ্ণ সাহা বলেন, আওয়ামী লীগের সমর্থকেরা বিএনপির প্রার্থী ও তার সমর্থকদের ওপর হামলা চালিয়েছে বলে যে অভিযোগ করা হচ্ছে, এটা সম্পূর্ণ মিথ্যাচার। এটা দলীয় কোন্দলনের কারণে হতে পারে। এখানে আওয়ামী লীগের কেউ জড়িত নয়।

নওগাঁ সদর থানার পুলিশ পরিদর্শক ফয়সাল বিন আহসান বলেন, এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত থানায় কোনো অভিযোগ করা হয়নি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে এ ঘটনায় আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এস ইসলাম/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category