ঠাকুরগাঁওবাসীর বৈশাখ উদযাপন : চারিদিকে উৎসবের আমেজ

কালের সংবাদ ডেস্ক: বিভিন্ন আয়োজনে ঠাকুরগাঁওয়ে পালিত হলো পহেলা বৈশাখ। বাঙালির ঐতিহ্যের এ দিনটিকে বরণ করতে ছিল হরেক রকমের আয়োজন। বৈশাখ উপলক্ষে জেলা কালেক্টরেট পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজের সামনের রাস্তায় আল্পনা অংকন কর্মসূচী সবার নজর কাড়ে।

রোববার রাতে আল্পনা অংকনে অংশ নেন ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসক ড. কেএম কামরুজ্জামান সেলিম। তিনি স্ব-পরিবারে আলপনা অংকন করার মাধ্যমে ঠাকুরগাঁওবাসীর মনে বারতি স্থান করে নিয়েছেন।

বৈশাখ উপলক্ষে সোমবার সকালে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে বর্ণাঢ্য মঙ্গল শোভাযাত্রা বের করা হয়। গরু, মহিষের গাড়ি ও ছোট বড় সকলের বিভিন্ন বাঙালি সাজের মাধ্যমে শোভাযাত্রা ছিল চোখে পড়ার মত। মঙ্গল শোভাযাত্রায় জেলা পুলিশ, আলপনাসহ বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠন অংশ নেয়। পরে মঙ্গল শোভাযাত্রাটি সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয় বড় মাঠে গিয়ে এক আনন্দঘন ও উৎসবমূখর পরিবেশের জন্ম দেয়। অপরদিকে সকালে কোট চত্বরে বটমুলে নিক্কন সঙ্গীত বিদ্যালয়ের আয়োজনে সঙ্গীতানুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে জেলার বিভিন্ন স্বনামধন্য শিল্পীরা অংশ নেয়।

পরে ষ্টেশন ক্লাব চত্বরে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে পান্তা-ইলিশ খাওয়ানো হয়। সেখানে জেলার বিভিন্ন উপজেলা ও শহরের বিভিন্ন স্তরের মানুষেরা পান্তা-ইলিশ খান। সেখানে অনুষ্ঠিত হয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠাণ। অনুষ্ঠান উদ্বোধন করেন আ’লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও ঠাকুরগাঁও-১ আসনের সংসদ সদস্য রমেশ চন্দ্র সেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, জেলা প্রশাসক ড. কেএম কামরুজ্জামান সেলিম, পুলিশ সুপার মোহা: মনিরুজ্জামান (পিপিএম), অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) নুর কুতুবুল আলম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) আমিনুল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট শীলাব্রত কর্মকার, নব নির্বাচিত সদর উপজেলা চেয়ারম্যান ও সদর উপজেলা আ’লীগের সভাপতি অরুনাংশু দত্ত টিটো, বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা ইএসডিও’র নির্বাহী পরিচালক ড. মুহম্মদ শহীদ উজ জামান, জেলা আ’লীগের বিভিন্ন স্তরের নেতা-কর্মী, ও বিভিন্ন সংগঠনের পাশাপাশি সাধারণ মানুষেরা উপস্থিত ছিলেন।

জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে “মুছে যাক গ্লানি, ঘুচে যাক জরা, অগ্নিস্নানে শুচি হোক ধরা” এই ভাবনাকে লালন করে বৈশাখ ও বাংলা নববর্ষ উপলক্ষে সকলকে শুভেচ্ছা জানানো হয়। অপরদিকে সরকারি কলেজ, সরকারি মহিলা কলেজসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও সাংস্কৃতিক, সামাজিক সংগঠন এবং ব্যক্তিগত উদ্যোগেও বৈশাখ উদযাপনের মধ্য দিয়ে বাংলা নতুন বছরকে বরণ করে নেওয়া হয়।

সোমবার বিকেলে সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয় বড় মাঠে বৈশাখের মেলা লাগে। সেখানে হরেক রকমের খেলনা ও খাবারের দোকান বসে। জেলার বিভিন্ন উপজেলা ও শহরের সাধারণ মানুষের ভীড়ে জমে উঠে বৈশাখের বর্ণিল আয়োজন। বাঙালির ঐতিহ্য এভাবেই টিকে থাকবে অনন্তকাল এই কামনা সবার।

 

এম কে ইসলাম/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category