গুগল ডুডলেও মা দিবস

কালের সংবাদ অনলাইন ডেস্ক: মা বিপদে-আপদে সন্তানকে আগলে রাখেন। চলার পথ দেখান। সন্তান যেমনই হোক না কেন, মায়ের স্নেহ থেকে বঞ্চিত হয় না। আজ ১২ মে বিশ্ব মা দিবস। আজ গুগলের হোমপেজ সেটিই স্মরণ করিয়ে দিচ্ছে। গুগল তাদের পেজে একটি অ্যানিমেটেড ডুডল প্রকাশ করেছে। গুগলের এই ডুডলটিতে সন্তানের প্রতি মায়ের ভালোবাসা প্রকাশ পেয়েছে।

গুগলের ডুডলে একটি হাঁস ও তার ছয় রঙের বাচ্চার মজার একটি অ্যানিমেশন তুলে ধরা হয়েছে। প্রথম স্লাইডে মা তার বাচ্চাগুলোকে নিয়ে পথ দেখাচ্ছে। দ্বিতীয় স্লাইডে তাদের সাঁতার শেখাচ্ছে। তৃতীয় স্লাইডে বৃষ্টিতে ডানা মেলে বাচ্চাদের আগলে রাখছে।গুগলের ডুডল পেজের তথ্য অনুযায়ী, বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে ডুডলটি দেখা যাচ্ছে। এটি শেয়ার ও সার্চের সুবিধাও রেখেছে গুগল।

বিভিন্ন দিবস, ব্যক্তি ও ঘটনার স্মরণে গুগল তাদের হোম পেজে বিশেষ লোগো ফুটিয়ে তোলে, যা ডুডল হিসেবে পরিচিত। এর আগে বাংলাদেশের বিভিন্ন দিবস ও ব্যক্তির স্মরণে এ ধরনের ডুডল প্রকাশ করেছে গুগল।

মাকে ভালোবাসা জানানোর জন্য আলাদা দিনের প্রয়োজন পড়ে না। প্রতিদিন, প্রতিক্ষণই মায়ের ভালোবাসা কাজ করে। তারপরও দেশে দেশে বিশেষ দিনে মা দিবস পালনের রীতি দেখা যায়। তবে সব দেশে একই দিনে মা দিবস পালিত হয় না। এখন অনেক দেশেই মে মাসের দ্বিতীয় রোববার মা দিবস পালিত হয়।

এবার মে মাসের দ্বিতীয় রোববার ১২ মে। দিবসটিতে মাকে শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা জানাচ্ছেন সন্তানেরা।

আধুনিক মা দিবসের প্রচলন হয় যুক্তরাষ্ট্রে। দিবসটির প্রবক্তা আনা মারিয়া রিভস জার্ভিস। তাঁর মা অ্যান মারিয়া রিভস জার্ভিস ছিলেন একজন শান্তিবাদী সমাজকর্মী। তিনি ‘মাদারস ডে ওয়ার্ক ক্লাব’ প্রতিষ্ঠা করেছিলেন।

১৯০৫ সালে অ্যান মারা যান। তাঁর মৃত্যুর পর মেয়ে আনা মায়ের স্বপ্ন পূরণে কাজ শুরু করেন। সব মাকে শ্রদ্ধা জানাতে একটি দিবস প্রচলনের লক্ষ্যে সচেষ্ট হন তিনি।

১৯০৮ সালে পশ্চিম ভার্জিনিয়ার একটি গির্জায় আনা তাঁর মায়ের স্মরণে অনুষ্ঠান করেন। একই বছর মার্কিন কংগ্রেস মা দিবসকে স্বীকৃতি দিয়ে সরকারি ছুটি ঘোষণার প্রস্তাব নাকচ করে। তবে তাতে দমে যাননি আনা। তিনি তাঁর চেষ্টা অব্যাহত রাখেন। ইতিমধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যে মা দিবস পালিত হতে থাকে।

অবশেষে আনার প্রচেষ্টা সফল হয়। ১৯১৪ সালে যুক্তরাষ্ট্রের তৎকালীন প্রেসিডেন্ট উড্রো উইলসন মে মাসের দ্বিতীয় রোববারকে মা দিবস হিসেবে ঘোষণা করেন। দিনটি সরকারি ছুটি ঘোষিত হয়।

যুক্তরাষ্ট্রের দেখাদেখি পরে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে মে মাসের দ্বিতীয় রোববার মা দিবস হিসেবে পালিত হতে থাকে।

এম কে ইসলাম/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category