করোনা ভাইরাস: অমীমাংসিত যতো প্রশ্ন

মোহাম্মদ শাব্বির হোসাইন: এবার ওপরের ঘটনাগুলির আলোকে পর্যায়ক্রমে বিশ্লেষণ করার চেষ্টা করবো ইনশাআল্লাহ্। আল্লাহ্ আমাকে তাওফিক দান করুন।

ওপরে বর্ণিত ষড়যন্ত্র তত্ত্বগুলির সার-সংক্ষেপ দাঁড়ায়, এক পক্ষে আমেরিকা, ইসরায়েল ও ব্রিটেন। আর অন্য পক্ষে চীন, রাশিয়া, ইরান, ফিলিপাইন, ভেনিজুয়েলা, মধ্যপ্রাচ্য এবং কিছু বিজ্ঞানী ও লেখক। প্রথম পক্ষের তীর চীনের দিকে আর দ্বিতীয় পক্ষের তীর আমেরিকার দিকে। শুরুতেই বলেছিলাম, উভয়পক্ষের কারো যুক্তিকেই ছোটো করে দেখবার কোনো উপায় নেই। যদিও এখন পর্যন্ত বিজ্ঞানীরাই নিশ্চিত নয় যে করোনা ভাইরাস সত্যিই কোনো ভাইরাস নাকি জীবাণু অস্ত্র। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা তো বলেই দিয়েছে, এটা কোনো জীবাণু অস্ত্র বলে এখন পর্যন্ত গবেষণায় প্রমাণ হয়নি। তাহলে প্রমাণ না হলে কেনো এমন পরষ্পরের প্রতি দোষারোপ? হতে পারে এর পেছনে আছে কোনো রাজনৈতিক ও ব্যবসায়িক স্বার্থ, যা হয়তো আর কিছুদিন পরেই পরিষ্কার হয়ে যাবে।

১৯৯০ সালে দখলীকৃত কুয়েত মুক্ত করার অযুহাতে ও ২০০৩ সালের ২০ মার্চ ইরাক আক্রমনের জন্য সাদ্দাম হোসেনের জীবাণু ও রাসায়নিক অস্ত্র মজুদের গল্প বানিয়ে পৃথিবীকে নিরাপদ করার গুরু দায়িত্ব কাঁধে তুলে নিয়ে প্রায় প্রতিটি দেশকে নিজেদের পক্ষে নিয়ে যৌথভাবে হামলা চালিয়েছিলো আমেরিকা। লাখ, লাখ নিরীহ মানুষ হত্যার পরও যখন কোনো জীবাণু বা রাসায়নিক অস্ত্র পাওয়া গেলো না তখন বিরোধীদের দাবির মুখে বলা হলো, আমাদের কাছে ভুল গোয়েন্দা তথ্য ছিলো। আসলেই কি তাই? তাহলে এতোগুলো প্রাণহানী, কোটি কোটি ডলারের সম্পদ নষ্ট, ইরাকের অত্যন্ত প্রাচীন সভ্যতার যে দালিলিক প্রমাণাদি নষ্ট হলো তার দায় কে নেবে?

ভালো কথা, যদি তর্কের খাতিরে ধরেও নিই ভুল গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতেই আক্রমন হয়েছে তাহলে এতো বছর পরেও কেনো তারা সেখানে বসে আসে জগদ্দল পাথরের মতো? কেনো ক্ষতিগ্রস্তদেরকে ক্ষতিপূরণ দেয়া হলো না? তার অর্থ, যা বলা হয়েছে সেগুলি মানুষকে বোকা বানানোর জন্য ভাঁওতাবাজী মাত্র। মূল বিষয় হচ্ছে, ব্যবসা। মধ্যপ্রাচ্যের কৌশলগত স্থানে জেঁকে বসে একাধারে তেল সম্পদের ওপর খবরদারি ও মুসলমান দেশগুলির মধ্যে বিভেদ লাগিয়ে দিয়ে অস্ত্র বিক্রিই আসল ফন্দি।

প্রথম পক্ষের দাবি, চীনের উহানে গবেষণাগারে জীবাণু অস্ত্র নিয়ে গবেষণার কোনো এক পর্যায়ে কারো মাধ্যমে ভাইরাসটি বাইরে চলে আসে এবং পরবর্তীতে তা ছড়িয়ে পড়ে। হতে পারে, চীন সত্যিই এমন কাজ করছিলো। দ্বি-মেরু কেন্দ্রিক বিশ্বব্যবস্থায় সামরিক সক্ষমতার যে ভারসাম্য ছিলো গ্লাসনস্ত ও পেরেস্ত্রইকা কর্মসূচীর মাধ্যমে তা তাসের ঘরের মতো ভেঙ্গে পড়ে, পরিণতিতে এককেন্দ্রিক বিশ্ববলয় তৈরি হয়।

সোভিয়েত ইউনিয়নের এতো বড় সাম্রাজ্য ভেঙ্গে খানখান হয়ে গেলেও চীন তার বিশাল সাম্রাজ্য কমিউনিজমের সুতায় ঠিকই বেঁধে রাখতে পেরেছে আজ পর্যন্ত। সুতরাং হয়তো তারা চাইছিলো, এমন কোনো অস্ত্র তৈরি করে মুহূর্তেই সারা পৃথিবীকে লকডাউন করে অর্থনীতিতে ধ্বস নামানো যাবে পাশাপাশি এ ভাইরাসের প্রতিষেধক বিক্রি করে বিলিয়ন বিলিয়ন ডলার আয়ও হবে। তখন স্বয়ংক্রিয়ভাবে সমস্ত পৃথিবীর কর্তৃত্ব চলে আসবে তাদের হাতে। এ আশঙ্কাকে একেবারে উড়িয়ে দেয়া যায় না। কারণ প্রযুক্তিতে সারা বিশ্বকে টেক্কা দেয়ার মতো পর্যায়ে চলে গেলেও ওদের মধ্যে বর্বরতা ও নৃশংসতা এখনও রয়ে গেছে, যেনো আদিম যুগের কোনো অসভ্য মানুষ! চীনারা খায় না এমন জন্তু-জানোয়ার পৃথিবীতে আছে বলে মনে হয় না। একজন বলছিলো, যা কিছু নড়ে, সেটাই তারা খায়। তার ওপর সে জানোয়ারগুলোকে হত্যা করার যে পদ্ধতি তা অত্যন্ত জঘণ্য, অমানবিক ও নৃশংস। ভিডিওতে দেখা যায়, খাঁচায় রক্ষিত কোনো কুকুর বা শুকরকে খাওয়ার আগে একটা বেড়ি বা চিমটা দিয়ে তার গলা খাঁচার শিকের বাইরে চেপে ধরা হয় এক হাতে ও অন্য হাতের লাঠি দ্বারা সজোরে আঘাত করা হয় তার মাথায়। পরে অজ্ঞান অবস্থায় তাকে খাঁচা থেকে বের করে আছাড় দিয়ে মেরে ফেলা হয় ও আগুনে পুড়িয়ে খায়। কখনো কখনো জীবিত অবস্থাতেই আগুন লাগিয়ে দেয়া হয়। পর্ব-৯ম

 

১ম পর্ব পড়তে ক্লিক করুন: http://kalersangbad.com/করোনা-ভাইরাস-অমীমাংসিত-য/

২য় পর্ব পড়তে ক্লিক করুন: kalersangbad.com/করোনা-ভাইরাস-অমীমাংসীত-য/

৩য় পর্ব পড়তে ক্লিক করুন: kalersangbad.com/করোনা-ভাইরাস-অমীমাংসিত-য-2/

৪র্থ পর্ব পড়তে ক্লিক করুন: kalersangbad.com/করোনা-ভাইরাস-অমীমাংসিত-য-3/

৫ম পর্ব পড়তে ক্লিক করুন:kalersangbad.com/করোনা-ভাইরাস-অমীমাংসিত-য-4/

৬ষ্ঠ পর্ব পড়তে ক্লিক করুন: kalersangbad.com/করোনা-ভাইরাস-অমীমাংসিত-য-5/

৭ম পর্ব পড়তে ক্লিক করুন: kalersangbad.com/করোনা-ভাইরাস-অমীমাংসিত-য-6/

৮ম পর্ব পড়তে ক্লিক করুন: kalersangbad.com/করোনা-ভাইরাস-অমীমাংসিত-য-7/

১০ম পর্ব পড়তে ক্লিক করুন: kalersangbad.com/করোনা-ভাইরাস-অমীমাংসিত-য-9/

১১ পর্ব পড়তে ক্লিক করুন: kalersangbad.com/করোনা-ভাইরাস-অমীমাংসিত-য-10/

১২ পর্ব পড়তে ক্লিক করুন: kalersangbad.com/করোনা-ভাইরাস-অমীমাংসিত-য-11/

১৩ পর্ব পড়তে ক্লিক করুন: kalersangbad.com/করোনা-ভাইরাস-অমীমাংসিত-য-12/

১৪ পর্ব পড়তে ক্লিক করুন: kalersangbad.com/করোনা-ভাইরাস-অমীমাংসিত-য-13/

১৫ পর্ব পড়তে ক্লিক করুন: kalersangbad.com/করোনা-ভাইরাস-অমীমাংসিত-য-14/

১৬ পর্ব পড়তে ক্লিক করুন: kalersangbad.com/করোনা-ভাইরাস-অমীমাংসিত-য-15/

১৭ পর্ব পড়তে ক্লিক করুন: kalersangbad.com/করোনা-ভাইরাস-অমীমাংসিত-য-16/

১৮ পর্ব পড়তে ক্লিক করুন: kalersangbad.com/করোনা-ভাইরাস-অমীমাংসিত-য-17/

১৯ পর্ব পড়তে ক্লিক করুন: kalersangbad.com/করোনা-ভাইরাস-অমীমাংসিত-য-18/

২০ পর্ব পড়তে ক্লিক করুন: kalersangbad.com/করোনা-ভাইরাস-অমীমাংসিত-য-19/

২১ পর্ব পড়তে ক্লিক করুন: kalersangbad.com/করোনা-ভাইরাস-অমীমাংসিত-য-20/

২২ পর্ব পড়তে ক্লিক করুন: kalersangbad.com/করোনা-ভাইরাস-অমীমাংসিত-য-21/

২৩ পর্ব পড়তে ক্লিক করুন: kalersangbad.com/করোনা-ভাইরাস-অমীমাংসিত-য-22/

২৪ পর্ব পড়তে ক্লিক করুন: kalersangbad.com/করোনা-ভাইরাস-অমীমাংসিত-য-23/

২৫ পর্ব পড়তে ক্লিক করুন: kalersangbad.com/করোনা-ভাইরাস-অমীমাংসিত-য-24/

২৬ পর্ব পড়তে ক্লিক করুন: kalersangbad.com/করোনা-ভাইরাস-অমীমাংসিত-য-25

২৭ পর্ব পড়তে ক্লিক করুন: kalersangbad.com/করোনা-ভাইরাস-অমীমাংসিত-য-26/

এস ইসলাম/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category