ওয়েস্ট ইন্ডিজ’কে হারিয়ে অস্ট্রেলিয়ার জয়

খেলার খবর: বিশ্বকাপে জয়ের ধারা অব্যাহত রাখলো বর্তমান চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া। টুর্নামেন্টের দ্বাদশ ম্যাচে বৃহ:বার ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ১৫ রানে হারিয়েছে অসিরা।

পাঁচ উইকেট শিকার করে দলের জয়ে গুরুত্বপুর্ন ভুমিকা পালন করেন পেসার মিচেল স্টার্ক। টুর্নামেন্টে নিজেদের প্রথম ম্যাচে আফগানিস্তানকে সাত উইকেটে হারিয়েছিল অসিরা। পক্ষান্তরে প্রথম ম্যাচে পাকিস্তানকে নাস্তানাবুদ করা ওয়েস্ট ইন্ডিজ দ্বিতীয় ম্যাচেই পরাজিত হলো।

জয়ের জন্য ২৮৯ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে শুরতেই ধাক্কা খায় ওয়েস্ট ইন্ডিজও। দলীয় ৭ ও ব্যক্তিগত ১ রানে পেসার প্যাট কামিন্সের শিকার হয়ে ওপেনার এভিন লুইস বিদায় নিলে প্রথম উইকেট হারায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। কিছুক্ষন পর ক্যারিবিয় শিবিরে আঘাত হানেন আরেক পেসার মিচেল স্টার্ক। আউট করেন ইন ফর্ম ব্যাটসম্যান ক্রিস গেইলকে। ১৭ বল মোকাবেলায় চার বাউন্ডারিতে ২১ রানে গেইল আউট হলে ৩১ রানে দ্বিতীয় উইকেট হারায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এমন অবস্থায় শক্ত হাতে দলের হাল ধরেন শাই হোপ ও নিকোলাস পুরান।

তৃতীয় উইকেট জুটিতে হোপ-পুরান ৬৮ রান তুলে বিচ্ছিন্ন হন। তবে দলকে ঠিকই জয়ের পথে নিয়ে যান। ৩৬ বলে পাঁচ বাউন্ডারি ও এক ওভার বাউন্ডারিতে ৪০ রান করে স্পিনার এডাম জম্পার শিকার হন পুরান। তার বিদায়ের পর ক্রিজে আসেন আরেক ইন ফর্ম ব্যাটসম্যান শিমরোন হেটমায়ার। চতুর্থ উইকেট জুটিতে হোপ-হেটমায়ার ৪৯ বলে ৫০ রান যোগ করেন। তবে দুর্ভাগ্যজনকভাবে হেটমায়ার রান আউটের ফাদে পড়লে কিছুটা চাপে পড়ে যায় ক্যারিবিয়রা।

তবে এক প্রান্ত আগলে রাখেন হোপ। ৩৬তম ওভারের শেষ বলে হোপ কামিন্সের দ্বিতীয় শিকারে পরনিত হলে দলীয় ১৯০ রানে পঞ্চম উইকেট হারায় জেসন হোল্ডারের দলটি। ১০৫ বলের ইনিংসে সাতটি বাউন্ডারি মেরে আউট হওয়া হোপের বিদায়ে ব্যাট হাতে নামেন আইপিএল মাতানো ‘দানব’ আন্দ্রে রাসেল। ভয়ংকর হয়ে ওঠা রাসলেকে খুব বেশি দূর যেতে দেননি স্টার্ক। ১১ বলে দুই বাউন্ডারি ও এক ওভার বাউন্ডারিতে ১৫ রান করে স্টার্কের দ্বিতীয় শিকার হন রাসেল। দলীয় ২১৬ রানে ষষ্ঠ উইকেট হারায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এরপর হোল্ডারের সঙ্গে জুটি বাধেন ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েট। জুটিতে ৩৮ বলে ৩৬ রান তোলার পর ১৭ বলে ১৬ রান করা ব্র্যাথওয়েট শিকার হন স্টার্কের। এ ওভারেই শেষ বলে আবারো আঘাত হানেন স্টার্ক। ৫৭ বলে সাত বাউন্ডারি ও এক ওভার বাউন্ডারিতে ৫১ রান করা হোল্ডারকে জাম্পার ক্যাচ বানিয়ে বিদায় করেন তিনি। নিশ্চিত হয়ে যায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের পরাজয়। শেষ দিকে এ্যাশলে নার্স ১৮ বলে ১৯ রানে ও ওশানে থমাস শুন্য রানে অপরাজিত থাকেন। ওয়েস্ট ইন্ডিজ থামে ২৭৩ রানে। স্টার্কের পাঁচ উইকেট ছাড়া আরেক পেসার কামিন্স শিকার করেন দুই উইকেট।

এর আগে স্টিভ স্মিথ ও নাথান কালটার নাইলের ব্যাটিং নৈপুন্যে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ২৮৮ রান করে অস্ট্রেলিয়া। বিশ্বকাপের দশম ম্যাচে সাউদাম্পটনে আজ টস জিতে অস্ট্রেলিয়াকে ব্যাটিং করতে পাঠায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ অধিনায়ক জেসন হোল্ডার। ব্যাটিং করতে নেমেই মহা বিপদে পড়ে অসিরা। ওয়েস্ট ইন্ডিজের পেস বোলিয়ংয়ের সামনে যেন দাঁড়াতেই পারছিলনা অস্ট্রেলিযা ব্যাটসম্যানরা। টপ অর্ডারের ব্যাটসম্যান পরোপুরি ব্যর্থ হলে ৭৯ রানেই ৫ উইকেট হারিয়ে ফেলে এ্যারন ফিঞ্চের দল।

তবে মিডল অর্ডারে অবিচল ছিলেন স্টিভ স্মিথ। ওয়ার্নার ৩, ফিঞ্চ ৬, উসমান খাজা ১৩ রানে আউট হলে মহা বিপদে পড়ে যায় অস্ট্রেলিয়া। তবে এক প্রান্ত আগলে রেখে দলকে টেনে তোলেন স্মিথ। কিছু সময় যথার্থ সহায়তা পান ৪৫ রান করা এ্যালেক্স ক্যারির কাছ থেকে। এরপর স্মিথকে সঙ্গ দিয়েছেন বোলার নাথান কালটার-নাইল। ষষ্ঠ উইকেট জুটিতে স্টয়নিসের(১৯) সাথে ৪১ এবং সপ্তম উইকেট জুটিতে ক্যারির(৪৫) সঙ্গে যোগ করেন ৬৮ রান।

এর পর কালটর নাইলের সঙ্গে ১০২ রানের জুটি গড়ে আউট হন স্মিথ। দলীয় ২৪৯ এবং ব্যক্তিগত ৭৩ রানে আউট হন তিনি। ওশানে থমাসের বলে আউট হওযার আগে ১০৩ বল মোকাবেলায় সাতটি বাউন্ডারি হাকান তিনি। তবে স্মিথ আউট হলেও মারমুখি মেজাজে ব্যাট করতে থাকেন কালটার নাইল। মাত্র ৬০ বল মোকাবেলায় আটটি বাউন্ডারি ও চারটি চারিট ওভার বাউন্ডারিতে ৯২ রানে কার্লোস ব্র্যাথওয়েটের শিকার হন তিনি। ১০ ওভারে ৬৭ রানে তিন উইকেট শিকার করেন ব্র্যাথওয়েট। এছাড়া দুইটি করে উইকেট নেন থমাস, শেলডন কট্রেল ও আন্দ্রে রাসেল।

এম কে ইসলাম/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category