ঐতিহ্যবাহী গরুর গাড়ী কালের আবর্তে হারিয়ে যাচ্ছে

উজ্জ্বল রায়, নড়াইল: কালের আবর্তে হারিয়ে যাচ্ছে গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী ‘গরুর গাড়ী। গরুর গাড়ী এক সময় যাত্রী বান্ধব বন্ধু হিসেবে অনেকেই অখ্যায়িত করত। এক সময় গরুর গাড়ী নিয়ে ছুটে চলতেন গ্রামের পর গ্রামে। বৃদ্ধ থেকে শুরু করে যুবক ও মধ্যবয়সী সহ সবাই গরুর গাড়ী নিয়ে বের হতেন। গরুর গাড়ী নিজের কাজের পাশাপাশি ব্যবহার হতো বিভিন্ন মালা মল বাহনের কাজে।

কিন্তু আধুনিকায়নে বিভিন্ন যানবহন বৈদ্যুতিক গাড়ী সারাদেশে ভরপুর। যার কারণে হারিয়ে যাচ্ছে একমাত্র উৎস রত ঐতিহ্যবাহী গরুর গাড়ী।  সারাদেশ এমনকি নড়াইল জেলা ও উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় তখনকার সময়ে গরুর গাড়ী মেরামতের জন্য হাট বাজারে দোকান দিয়ে বসত। এছাড়া অনেকে গ্রামের বিভিন্ন বাড়িতে গিয়ে গরুর গাড়ী মেরামত করত। কিন্তু এখন আর গরুর গাড়ী ব্যবহার না করার ফলে গরুর গাড়ীর মিস্ত্রীদের এখন আর দেখাও যায় না।

নড়াইল এলাকার গরুর গাড়ী চালক শিসষ, বলেন এক সময় গরুর গাড়ী ছাড়া রাতে ও দিনে চলাচল করা যেত না। কিন্তু এখন এলাকায় কোম্পানির বিভিন্ন ধরনের যানবাহন বের হওয়ায় এখন আর গরুর গাড়ী প্রয়োজন হয় না। শিক্ষক সুলতান মাহামুদ, পৌর কমিসনার মাহাবুর আলম বলেন, আগে রাতে ও দিনে বেরহলে গরুর গাড়ী ছাড়া অন্য কোন যানবহন পাওয়া যেত না। কিন্তু এখন ঘরে থেকে বেরহলেই বিদ্যুৎতের গাড়ী ও অন্য যানবাহন পাওয়া যায় কারণে এখন আর গরুর গাড়ীর প্রয়োজন হয় না।,এক সময় নিজের হাতে অনেক গরুর গাড়ী মেরামত করেছি। কিন্তু এখনকার সময়ে বাড়ী গাড়ী থাকলেও তা কেউ ব্যবহার করে না। এতে মেরামতের কাজ হয় না।যার কারণে এই পেশা ছাড়তে হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, সময়ের আবর্তে হয়তোবা ভবিষ্যতে কোন এক সময় গরুর গাড়ী দেখতে যেতে হবে জাদুঘরে। নতুন প্রজন্ম হয়তো জানবেও না গরুর গাড়ীর ইতিহাস।

এম কে ইসলাম/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category