আদমদিঘীর সান্তাহারে ছাত্রলীগ সভাপতি অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার

এ,কে,এম,মাহবুব আলম, (আদমদিঘী, বগুড়া): আদমদিঘী থানা পুলিশ গতকাল রাতে থানা ছাত্রলীগের সভাপতি মশিউর রহমান সজল ও তার সহযোগী একরামুল হক শুভকে অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার করে।

এসময় সজলের বাসা থেকে একটি বিদেশী পিস্তল ও একটি খালি ম্যাগজিন উদ্ধার করা হয়। গতকাল বিকেলে থানা ছাত্রলীগের সভপতি সজল গ্রুপের সাথে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আনছার আলীর ছেলে রবিনের কথা কাটাকাটি ও হাতাতাতির ঘটে ।যার প্রেক্ষিতে সজল তার লোকজন নিয়ে রবিনের খোঁজে আনছার আলীর বাড়িতে যায় । সেখানে রবিনকে না পেয়ে এক পর্যায়ে  রবিনের বাবা আনছার আলীর সাথে কথা কাটাকাটি হয় এবং সজল গ্রুপের লোক জন তাকে মারধর করে ।

এ সময় তারা ঐ বাড়ির আসবাবপত্র ভাংচুর করে। এ ঘটনায় আনছার আলী বাদী হয়ে দ্রুত বিচার আইনে একটি মামলা করেন।এতে প্রধান আসামি করেন নব-নির্বাচিত উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মাহমুদুল্লা হক পিন্টু ও ২য় আসামী ছাত্রলীগের বর্তমান সভাপতি সজল, তৃতীয় আসামী মোস্তাফিজুর রহমান সোহাগ। এছাড়া শুভ, জয়, আশিক, জামিল হোসেন সহ ১১জন এজাহার ভুক্ত ও অঞ্জাত ১০-১২ জনকেও আসামি করেন।

উল্লেখ্য, আনছার আলী একজন মুক্তিযোদ্ধা ও প্রবীণ রাজনীতিবিদ।তিনি বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের একজন কর্মী। এ বছর উপজেলা নির্বাচনে তিনি ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচনে অংশ নিয়ে পরাজিত হন।

আদমদিঘী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) মো:মনিরুল ইসলাম জানান, এই মামলার ভিত্তিতে এবং প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে আসামী গ্রেপ্তারে জন্য গতকাল রাতে তার নেতৃত্বে আদমদিঘী থানা পুলিশ ও সান্তাহার ফাঁড়ী পুলিশ একত্রিত ভাবে পিন্টুর বাড়িতে অভিযান পরিচালনা করে।পরে অভিযানে যুক্ত হন আদমদিঘী-দুপচাচিয়া সার্কেল এসপি। তথ্য ছিলো সজল ও তার সহযোগী পিন্টুর বাড়িতে আত্মগোপন করে আছে।প্রথমে পুলিশ বাড়ির দরজা খুলতে অনুরোধ করলেও কেউ দরজা না খুললে, পুলিশ প্রতিবেশীর সহায়তা নেয় , কিন্তু তাতেও দরজা না খুললে প্রায় ১ঘন্টা পর দরজা ভেঙ্গে সজল ও শুভকে গ্রেপ্তার করে।কালক্ষেপণের কারণে সন্দেহের সৃষ্টি হলে পুলিশ সজল ও শুভকে আলাদা করে জিঞ্জাসাবাদ শুরু করে, এক পর্যায়ে শুভ স্বীকার করে  সজলের কাছে একটি অস্ত্র আছে এবং তা সে দেখেছে।

এরপর সজল ও বিষয়টি স্বীকার করলে তার বাসায় পুলিশ সার্চ করে এবং সজলের ঘরের বিছানার নিচ থেকে একটি বিদেশী পিস্তল ও একটি খালি ম্যাগজিন উদ্ধার করে।এই ঘটনায় অস্ত্র আইনের একটি মামলা হয়েছে। এস আই তহিদ বাদী হয়ে সজল ও শুভকে (২জন) আসামী করে মামলাটি করেন।

এম কে ইসলাম/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category